আশার আলো! স্বাধীনতা দিবসের ছুটিতে বেড়েছে হোটেল, বিমান বুকিং

বিবি ডেস্ক : করোনার দ্বিতীয় ঢেউ কিছুটা কমে যেতেই পর্যটকদের বেরিয়ে পড়া ইচ্ছাটা আবার বাড়তে শুরু করেছে। এবারে স্বাধীনতা দিবস রবিবার। তাই উইকএন্ডে অনেকেই বেরিয়ে পড়তে চাইছেন। ফলে গত দুসপ্তাহে হোটেল, ট্রেন এবং বিমান বুকিংও বেড়েছে উল্লেখযোগ্য হারে।

পরিস্থিতি কিছুটা আন্দাজ করেই বিমান সংস্থাগুলি উইকএন্ড ট্রাভেলের জন্য নানা স্কিম চালু করেছে। ভিস্তারা স্বাধীনতা দিবসের উইকএন্ডে পরিবার ও বন্ধুদের সঙ্গে ভ্রমণের জন্য ১০ শতাংশ ছাড় দিচ্ছে। গো ফাস্ট ও বিনামূল্যে গোয়ায় ছুটি কাটানোর জন্য লাকি ড্র চালু করেছে।

অনলাইন ট্রাভেল বুকিং সংস্থাগুলিও বেশ কিছু ছাড় দিচ্ছে। উদাহরণ হিসাবে বলা যেতে পারে EaseMyTrip সংস্থাটি ৪ থেকে ২২ আগস্টের মধ্যে হোটেল বুকিং-এর ক্ষেত্রে ছাড় দিচ্ছে।

সংস্থার সহ-প্রতিষ্ঠাতা রাইকান্ত পিট্টি জানিয়েছেন, ‘‘সব বুকিং-ই বাড়ছে। সামনে উইকএন্ড আছে বলে নয়, বিমান সংস্থা ছাড় দিচ্ছে বলে।’’ ৩০ শতাংশ বুকিং বেড়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

কোথায় বেড়াতে যাচ্ছেন পর্যটকরা?

অনেকেই বেড়ানোর জায়গা হিসাবে বেছে নিচ্ছেন প্রতিবেশী রাজ্য বা শহর, পাহাড়। যারা আবার নিজের শহরের বাইরে বেরোতে চাইছেন না, তারা নিজের শহরেই হোটেল বুকিং করছেন।

তবে বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, ২০২০ অক্টোবর থেকে ২০২১-এর মার্চ অবধি পর্যটকরা বেড়ানোর জায়গা হিসাবে বেছে নিয়েছেন কাছাকাছি এলাকা। রাত্রিবাস না করে যাতে ফিরে আসা যায়। এবার অবশ্য হোটল বুকিং-এর প্রবণতা বেড়েছে। শহরের মধ্যে হলেও দু-তিন দিনের জন্য হোটেল বুকিং করছেন।

পর্যটন শিল্পও অপেক্ষা করছে সরকার কবে বিমানে যাত্রীর সংখ্যা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত ঘোষণা করবে। গত ডিসেম্বর মাসে অসামরিক বিমান প্রতিরক্ষা মন্ত্রক ৮০ শতাংশ যাত্রী নিয়ে উড়ানের অনুমতি দেয়। কিন্তু করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ায় জুন মাসে তা আবার ৫০ শতাংশে নামিয়ে আনে। পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হওয়ায় পর্যটন শিল্পের আশা আবার সরকার যাত্রী সংখ্যা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেবে।

আরও পড়ুন : পোস্ট অফিসে এই স্কিমে টাকা রাখলে FD-থেকেও বেশি আয়

Be the first to comment

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.