ঋণের স্থগিত কিস্তির উপর বাড়তি সুদ নেওয়া হবে না, সুপ্রিম কোর্টে জানাল কেন্দ্র

নয়াদিল্লি: বড়োসড়ো সুখবর ঋণগ্রহীতাদের জন্য! শুধুমাত্র ব্যক্তিগত ভাবে ঋণ নেওয়া ব্যক্তিবিশেষই নন, ছোটো ব্যবসায়ীরাও উপকৃত হবেন কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তে!

করোনা লকডাউনের সময় ঋণের কিস্তির উপর মোরাটোরিয়ামের (ইএমআই দেওয়া স্থগিত রাখা) সুবিধা নেওয়া গ্রাহককে বাড়তি সুদ দিতে হবে না বলে শুক্রবার সুপ্রিম কোর্টে হলফনামা পেশ করে জানিয়েছে কেন্দ্র।

এর আগের শুনানিতে করোনাভাইরাস সংকটে ঋণের কিস্তির উপর স্থগিতাদেশ সম্পর্কিত স্থির সিদ্ধান্ত নিতে কেন্দ্রকে দু’ সপ্তাহ দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট

শুক্রবার শীর্ষ আদালতে কেন্দ্র জানায়, লকডাউনের সময় রিজার্ভ ব্যাঙ্কের দেওয়া মোরেটোরিয়াম পর্বে জমে থাকা সুদ ছেড়ে দিতে প্রস্তুত সরকার। তবে দু’ কোটি টাকা পর্যন্ত ঋণের ক্ষেত্রেই এই ছাড় দেওয়া হবে।

কেন্দ্রের তরফ থেকে সুপ্রিম কোর্টে পেশ করা হলফনামায় স্পষ্ট করেই বলা হয়েছে, কম্পাউন্ড ইন্টারেস্ট বা সুদের উপর সুদ ছেড়ে দেওয়া হবে। এমএসএমই (ক্ষুদ্র, ছোটো ও মাঝারি উদ্যোগ), শিক্ষা, আবাসন, ঘরোয়া পণ্য, ব্যক্তিগত ঋণ, গাড়িঋণ এবং ক্রেডিট কার্ডে নেওয়া ঋণের ক্ষেত্রেই এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ঋণগ্রহীতাদের স্বস্তি দিতে ইএমআইয়ের উপর ছ’ মাসের স্থগিতাদেশ অথবা মোরাটোরিয়ামের অনুমতি দিয়েছিল ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক। কিন্তু ওই সময়কালে ইএমআইয়ের উপর বাড়তি সুদ নেওয়া হবে কি না, তা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। শেষ পর্যন্ত এই বিষয়ে মামলা গড়ায় শীর্ষ আদালতে। সেই মামলার জেরেই সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশমতোই তথ্য-সহ হলফনামা জমা করল কেন্দ্র।

কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তে শুধু ব্যক্তিগত ভাবে ঋণ নেওয়া গ্রাহকই নন, ছোটো ব্যবসায়ীরাও উপকৃত হবেন। হলফনামায় কেন্দ্র বলেছে, মার্চ থেকে আগস্ট পর্যন্ত ঋণের কিস্তি স্থগিতের সুবিধা দেওয়া হয়েছিল। এর উদ্দেশ্য ছিল, গ্রহীতাদের আর্থিক সংকট লাঘব করা। প্রাক্তন সিএজি রাজীব মেহর্ষির কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী ওই সময়কালে বাড়তি সুদ মকুবের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

তবে অর্থমন্ত্রক বলেছিল, “প্রতিটি বিভাগে এই অতিরিক্ত সুদ মকুব করলে ব্যাঙ্কগুলির ঘাড়ে ছ’ লক্ষ কোটি টাকার বোঝা চাপবে। যদি ব্যাঙ্কগুলি এই বোঝা বহন করে, তা হলে তাদের নিট সম্পদের একটি বড়ো অংশ মুছে যাবে। যা ব্যাঙ্কগুলির ভাঁড়ারের ক্ষেত্রে একটি গুরুতর প্রশ্ন দাঁড় করিয়ে দেবে।”

কিন্তু সুদের উপর সুদ নিলে আদপে মোরেটোরিয়ামের কী অর্থ, সেই প্রশ্নই উঠেছে। জানা গিয়েছে, আগামী সোমবার শীর্ষ আদালতে এই মামলার শুনানি হবে।

Be the first to comment

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.