ফেব্রুয়ারিতেও সুখবর! পর পর ৫ মাস বাড়ল জিএসটি সংগ্রহ

জিএসটি

বাংলা বিজ ডেস্ক: ফেব্রুয়ারিতে ৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেল জিএসটি সংগ্রহ। এই নিয়ে পর পর পাঁচ মাস বৃদ্ধির মুখ দেখে সদ্য শেষ হওয়া মাসে জিএসটি সংগ্রহ হয়েছে ১.১৩ লক্ষ টাকার বেশি। অন্যদিকে, এই নিয়ে টানা তিন মাস ১.১ লক্ষ কোটি টাকার উপরে রইল জিএসটি সংগ্রহ।

অর্থমন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী, এই নিয়ে টানা পঞ্চম বার এক লক্ষ টাকার গণ্ডি অতিক্রম করল জিএসটি-র পরিমাণ। গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ফেব্রুয়ারিতে ৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে জিএসটি সংগ্রহের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১.১৩ লক্ষ কোটির বেশি। যা করোনা বিধ্বস্ত অর্থনীতির ঘুরে দাঁড়ানোর স্পষ্ট ইঙ্গিত দিচ্ছে বলেই মনে করছেন অর্থনৈতিক বিশ্লেষকরা।

মোট সংগ্রহের মধ্যে কেন্দ্রীয় জিএসটি (সিজিএসটি) প্রায় ২১,০৯২ কোটি টাকা, রাজ্য জিএসটি (এসজিএসটি) ২৭,২৭৩ কোটি টাকা। ইতোমধ্যে, ইন্টিগ্রেটেড জিএসটি (আইজিএসটি) সংগ্রহ হয়েছে ৫৫,২৫৩ কোটি টাকা (পণ্য আমদানিতে সংগৃহীত ২৪,৩৩২ কোটি টাকা) এবং সেস ৯,৫২৫ কোটি টাকা (পণ্য আমদানিতে সংগৃহীত ৬৬০ কোটি টাকা-সহ)।

সরকার সিজিএসটিতে ২২,৩৯৮ কোটি এবং আইজিএসটি থেকে ১৭,৫৩৪ কোটি টাকার এসজিএসটি নিয়মিত হিসাবে নিষ্পত্তি করেছে। এ ছাড়াও, কেন্দ্র অ্যাডহক সেটেলমেন্ট হিসাবে রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির মধ্যে ৫০:৫০ অনুপাতে আইজিএসটি বাবদ ৪৮,০০০ কোটি টাকার নিষ্পত্তি করেছে।

একমাসে পণ্য আমদানি থেকে আয় ছিল ১৫ শতাংশ বেশি এবং গার্হস্থ্য লেনদেনের (আমদানি পরিষেবা-সহ) আয় ছিল গত বছরের একই সময়ের তুলনায় সংগৃহীত আয়ের চেয়ে ৫ শতাংশ বেশি।

তবে ফেব্রুয়ারির জিএসটি সংগ্রহের অঙ্ক গত জানুয়ারির তুলনায় হ্রাস পেয়েছে। জানুয়ারিতে জিএসটি সংগ্রহের পরিমাণ ছিল ১,১৯,৮৭৫ কোটি টাকা। জিএসটি চালু হওয়ার পর থেকে যা ছিল সর্বোচ্চ। সেই জায়গায় ফেব্রুয়ারিতে জিএসটি সংগ্রহের পরিমাণ ১,১৩,১৪৩ কোটি টাকা।

একই সঙ্গে অর্থনৈতিক বিশ্লেষকদের যুক্তি, এমনিতে ফেব্রুয়ারিতে জিএসটি সংগ্রহের বৃদ্ধির ঘটা স্বাভাবিক একটা বিষয়। তবে করোনা মহামারির ধাক্কা সামলে অর্থনীতিতে যে গতি ফিরছে সেই লক্ষণও স্পষ্ট। তাঁরা এমনও বলছেন, চলতি মার্চে জিএসটি সংগ্রহ ১৮-২৩ শতাংশ বাড়তে পারে।

আরও পড়তে পারেন: সপ্তাহান্তে রক্তক্ষরণের পর সোমবার সেনসেক্স উঠল ৭০০ পয়েন্টর বেশি

Be the first to comment

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.