গাড়ি শিল্পের হাল ফেরাতে উদ্যোগী কেন্দ্র

Nirmala Sitharaman
ছবি: দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস থেকে

বিবিডেস্ক: গাড়ি শিল্পের সংকট কাটাতে একগুচ্ছ কার্যকরী পরিকল্পনা নিচ্ছে কেন্দ্র। মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন বলেন, গাড়ি নির্মাতা সংস্থাগুলির দাবিতে সাড়া দেবে সরকার।

ভারতের বাজারে গাড়ি বিক্রি আগস্ট মাসে ২৩.৫ শতাংশ কমেছে। যা এক বছরের ভিত্তিতে এক মাসের মধ্যে সর্বকালের সর্বনিম্ন। যা ১৯৯৭-৯৮-র সালে শিল্প সংস্থা সোসাইটি অব ইন্ডিয়ান অটোমোবাইল ম্যানুফ্যাকচারার্স (সিয়াম) থেকে তথ্য সংগ্রহ করার পর থেকে এই প্রথম।
চলতি বছরের আগস্ট মাসে সামগ্রিক বিক্রয় ১৮২১৪৯০ ইউনিট দাঁড়িয়েছে, যা গত বছরের একই মাসে ২৩৮২৪৩৬ ইউনিট ছিল। মে মাসে ২০৮৬৩৫৮ ইউনিট বিক্রয় হয়েছিল। তারপর থেকে মাসের ভিত্তিতে বিক্রয়ের পরিমাণও কমেছে।

সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে পরিবহণ বিভাগ। আগস্টে বিক্রয় ৩১.৫৭ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে। ডিসেম্বর ২০০০ সালে শেষ ৩৫.২২ শতাংশ কমেছিল। গুরগাঁও কারখানায় শ্রমিক অসন্তোষের কারণে দেশের বৃহত্তম গাড়ি প্রস্তুতকারক মারুতি-সুজুকির মে মাসের বিক্রি অনেকটাই কমে গিয়েছিল।

অন্যান্য বিভাগগুলিও এর চেয়ে ভাল ফল করেনি। সামগ্রিক অর্থনীতির প্রকৃত ব্যারোমিটার হিসাবে বিবেচিত বাণিজ্যিক পরিবহণ বিভাগটির বিক্রি হ্রাস ৩.৭১ শতাংশ কমেছে এবং গ্রামীণ অর্থনীতিতে দু’চাকার গাড়ি বিক্রি ২২.২৪ শতাংশ কমেছে। মোটরসাইকেল এবং স্কুটারের বিক্রি উভয়ই মাসে ২২ শতাংশেরও বেশি কমেছে।

দুই চাকার গাড়ি নির্মাতাদের ক্ষেত্রে এটি এক মাসে সব থেকে হ্রাস পেয়েছিল। এর আগের সর্বনিম্ন হ্রাস ছিল ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে নোটবন্দির পরে, যখন হ্রাস কমেছিল ২২.০৪ শতাংশে।
সিয়ামের সভাপতি রাজন ওয়াদেরা একমত হয়ে জানিয়েছেন, এই সংকট নজিরবিহীন। তিনি বলেন, “আমরা এত দীর্ঘমেয়াদি সময় ধরে কখনো শিল্পের প্রতিটি বিভাগকে একই সময়ে এতটা পতন হতে দেখিনি।” তিনি আরও বলেন, “উৎসবের মরশুমকে কেন্দ্র করে আমরা ছাড়ের পরিমাণ বাড়িয়েছি। এটাই দেখার সময়। আরও বেশি ছাড় দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। তবে এর ফল টের পাওয়া যাবে মরশুমের শেষে।”

অন্য দিকে গাড়ি নির্মাতা সংস্থাগুলিকে বেশ কিছু কার্যকরী পরামর্শ দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রের তরফে। এ দিন নির্মলা বলেন, “আমরাও বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগের মধ্যে রয়েছি। সরকার গাড়ি নির্মাতা সংস্থাগুলির দাবিগুলির যথার্থ প্রত্যুত্তর দেবে”।

Be the first to comment

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.