অতিরিক্ত মদ্যপানের কারণে মৃত্যু! আত্মীয়স্বজনের বিমার দাবি অস্বীকার সুপ্রিম কোর্টে

শুধুমাত্র দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যুর কারণে বিমাকারীর আইনি উত্তরাধিকারী ক্ষতিপূরণ পেতে পারেন, বিমা সংস্থার শর্ত উল্লেখ করে বলল সুপ্রিম কোর্ট।

নয়াদিল্লি: অতিরিক্ত মদ্যপানের ফলে শ্বাসকষ্টের কারণে মারা যাওয়া ব্যক্তির আইনী উত্তরাধিকারীকে বিমা সুবিধা দিতে অস্বীকার করল সুপ্রিম কোর্ট। সোমবার এই মামলার রায় দিতে গিয়ে সর্বোচ্চ আদালত বলেছে, বিমা সংস্থা শুধুমাত্র এমন ব্যক্তিকে ক্ষতিপূরণ দিতে দায়বদ্ধ, যে যিনি পুরোপুরি এবং সরাসরি দুর্ঘটনা থেকে আঘাত পেয়েছেন।

কী বলছে সুপ্রিম কোর্ট?

বিচারপতি এমএম শান্তানগৌড়ার ও বিচারপতি বিনীত শরণের একটি বেঞ্চ জাতীয় গ্রাহক বিরোধ নিষ্পত্তি কমিশন (এনসিডিআরসি)-এর আদেশ বহাল রেখে বলেছে, মৃত্যুটি দুর্ঘটনাক্রমে নয় এবং তাই বিমা পলিসির শর্তগুলি মেনে মৃত ব্যক্তির প্রাণহানির ক্ষতিপূরণ দেওয়ার জন্য এই প্রতিষ্ঠানের কোনো আইনী দায়বদ্ধতা নেই।

বেঞ্চ বলেছে, “মামলার সত্যতা ও পরিস্থিতির দিকে তাকিয়ে আমরা ২৪ এপ্রিল, ২০০৯-এ জাতীয় কমিশনের দেওয়া আদেশে হস্তক্ষেপ করার কোনো কারণ খুঁজে পাচ্ছি না”।

কী বলছে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট?

শীর্ষ আদালত ১৯৯৭ সালের ৭-৮ অক্টোবর রাতে বজ্রপাত এবং প্রবল বৃষ্টির রাতে হিমাচলপ্রদেশ রাজ্য বন কর্পোরেশনের (এইচপিএসএফসি) প্রহরী (ওয়াচম্যান) মারা যাওয়ার পরে তাঁর উত্তরাধিকারী নরবদাদেবী এই মামলাটি করেন। কিন্তু সিমলা জেলার চৌপল পঞ্চায়েতে ঘটে যাওয়া ওই ঘটনায় মৃ্ত ব্যক্তির আত্মীয়কে বিমার টাকা দিতে অস্বীকার করে সুপ্রিম কোর্ট।

উল্লেখ্য, মৃত ব্যক্তির ময়নাতদন্তের রিপোর্টে স্পষ্ট ভাবে ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে, তাঁর শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি এবং চূড়ান্ত পর্যবেক্ষণ অনুযায়ী মৃত্যুর সম্ভাব্য কারণটি হল মদ্যপান এবং তার কারণে শ্বাসকষ্ট।

কেন বিমার দাবি নিষ্পত্তি নয়?

বেঞ্চ শুনানিতে বলে, বিমা নীতিতে স্পষ্টতই বলা রয়েছে,বিমাকারী ব্যক্তি শুধুমাত্র দুর্ঘটনার ফলে শারীরিক আঘাত পেলে বিমা সংস্থা ক্ষতিপূরণ দিতে বাধ্য থাকবে। একই সঙ্গে বেঞ্চ বলে, বিমা নীতিমালা অনুযায়ী, শুধুমাত্র দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যুর কারণে বিমাকারীর আইনি উত্তরাধিকারী ক্ষতিপূরণ পেতে পারেন।

বেঞ্চ বলে, এই মৃত্যুকে দুর্ঘটনাক্রমে হয়েছে, এমন সিদ্ধান্তে পৌঁছানোর পক্ষে আমাদের অসুবিধা রয়েছে। জাতীয় কমিশন এবং রাজ্য কমিশন যথাযথ ভাবে মৃতের মৃত্যুর কারণটি দুর্ঘটনাজনক ছিল না বলে জানিয়েছে। যে কারণে বিমা সংস্থা আবেদনকারীর দাবি নিষ্পত্তিতে দায়বদ্ধ নয়।

আরও পড়তে পারেন: সেভিংস অ্যাকাউন্ট থেকেও আয় করতে পারেন, এই ব্যাঙ্ক ৭.১৫ শতাংশ সুদ দিচ্ছে

Be the first to comment

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.