মাত্র ৬ দিনে শেয়ারবাজারে বিনিয়োগকারীদের লোকসান ১১ লক্ষ কোটি টাকারও বেশি

Bombay Stock Exchange
বোম্বে স্টক এক্সচেঞ্জ।

বাংলাbiz ডেস্ক: মাত্র ছ’দিনেই ভারতের শেয়ারবাজারে বিনিয়োগকারীরা খোয়ালেন ১১ লক্ষ কোটি টাকারও বেশি।

দেশের শেয়ারবাজার বৃহস্পতিবার পর্যন্ত টানা ছ’দিন ধরে পড়েই চলেছে। শেষ দিনে রীতিমতো রক্তবন্যা বয়ে যায় শেয়ারবাজারে। করোনা মহামারির জেরে সংকটে পড়া অর্থনীতির পুনরুদ্ধার নিয়ে ঘোর সংশয় তৈরি হয়েছে। তারই মধ্যে আরও কয়েকটি নেতিবাচক কারণের জেরেই এই লাগাতার অবনমন চলছে স্টক মার্কেটে।

অর্থনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে বিনিয়োগকারীদের উদ্বেগ যে কত গুণ বেড়েছে তারই বহির্প্রকাশ হল  বৃহস্পতিবার বেলাশেষে বাজার বন্ধের সময় সেনসেক্সে ১,১১৪ পয়েন্ট (২.৯৬ শতাংশ) এবং নিফটি ফিফটিতে ৩২৬ পয়েন্টের (২.৯৩ শতাংশ) পতন।সংশয়ের আবর্তে পড়ে স্টক বিক্রির প্রবল চাপ যে বাজারের কাছে অসহনীয় হয়ে উঠেছে, এটা তারই প্রমাণ।

কত টাকা ছিল, কত রইল

সংবাদ সংস্থা পিটিআইয়ের তথ্য অনুযায়ী, শেষ ছ’টি কেনাবেচার দিনে শেয়ারবাজার থেকে সরে গিয়েছে ১১,৩১,৮১৫.৫ কোটি টাকা।

বম্বে স্টক এক্সচেঞ্জের তালিকাভুক্ত সংস্থাগুলির বাজার মূলধন ১১,৩১,৮১৫.৫ কোটি টাকা কমে ১,৪৮,৭৬,২১৭.২২ কোটি টাকাতে নেমে এসেছে। অন্য দিকে গত ১৬ সেপ্টেম্বরের পর থেকে বিএসই-র বেঞ্চমার্ক সূচককে ২,৭৪৯.২৫ পয়েন্ট খোয়াতে হয়েছে।

অর্থনীতির পুনরুদ্ধার নিয়ে অনিশ্চয়তা, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধি, ডেরিভেটিভস সমাপ্তির দিন-সহ একাধিক কারণকে বিপর্যয়ের জন্য দায়ী করা হচ্ছে।

শুক্রবারের ইঙ্গিত

আমেরিকার ডাউজোন ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইনডেক্সে মৃদু পুনরুদ্ধারের আভাস মিলেছে।

বৃহস্পতিবার ডাউজোন ০.০৮ শতাংশ, নাসদাক কম্পোজিট ০.৭৯ শতাংশ এবং এসঅ্যান্ডপি৫০০ ছিল ০.৩১ শতাংশ উপরে।

নিফটি এখন ১০,৮০৫ পয়েন্টে। বিশ্লেষকরা বলছেন, আরও দুর্বল হলে তা ১০,৬৫০-১০,৬০০ পর্যন্ত নামতে পারে।

অন্য দিকে নতুন করে বিনিয়োগ ঢুকলে নিফটি ১১,১১১-১১,২৫০ পয়েন্ট পর্যন্ত দৌড়োতে পারে।

Be the first to comment

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.