২৫ বছরে ভারতে দুধের উৎপাদন বাড়বে তিন গুণ, প্রত্যাশা আমুল-কর্তার

বিবি ডেস্ক: ভারতের দুধ উৎপাদন আগামী ২৫ বছরে তিনগুণ বাড়বে বলে আশাপ্রকাশ করলেন আমুলের (Amul) ম্যানেজিং ডিরেক্টর আর এস সোধি। সোমবার আমুল-কর্তা বলেন, ৪.৫ শতাংশ গড় বার্ষিক বৃদ্ধির সঙ্গেই এই লক্ষ্য পূরণে সফল হবে দেশ।

৬২৮ মিলিয়ন টনে পৌঁছাবে দুধ উৎপাদন

আমুল ব্র্যান্ডের অধীনে দুগ্ধজাত পণ্য বাজারজাত করে গুজরাত কো-অপারেটিভ মিল্ক মার্কেটিং ফেডারেশনের (GCMMF)। ভারতের বৃহত্তম দুগ্ধ সরবরাহকারী সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর বলেন, ২০২১ সালে দেশে ২১০ মিলিয়ন টন দুধ উৎপাদিত হয়েছিল।

ইন্টারন্যাশনাল ডেয়ারি ফেডারেশন ওয়ার্ল্ড ডেয়ারি সামিট (IDF WDS) ২০২২-এ বক্তৃতা করার সময় আগামী ২৫ বছরে ভারতীয় দুগ্ধশিল্পের দৃষ্টিভঙ্গি সম্পর্কে তিনি বলেন, “ভারতে দুধের উৎপাদন বার্ষিক গড় ৪.৫ শতাংশ হারে আগামী ২৫ বছরে ৬২৮ মিলিয়ন টনে পৌঁছাবে বলে অনুমান”।

চাহিদা বেড়ে হবে ৫১৭ মিলিয়ন টন

উৎপাদনের পাশাপাশি চাহিদাও বাড়ছে। তিনি বলেন, ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার কারণে চাহিদাও বাড়তে চলেছে। আগামী ২৫ বছরে দুধের চাহিদা বেড়ে ৫১৭ মিলিয়ন টন হবে বলে আশাপ্রকাশ করেন তিনি। এতে ১১১ মিলিয়ন টন রফতানি উদ্বৃত্ত থাকবে বলেও জানান আমুল এমডি।

ভারতের দুগ্ধশিল্পে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী সরবরাহ শৃঙ্খল রয়েছে বলে দাবি করেন তিনি। তাঁর আরও দাবি, গ্রাহকদের কাছে দুধ সরবরাহের জন্য প্যাকেজিং এবং পরিবহণ খরচ বিশ্বব্যাপী গড় তুলনায় অনেক কম।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানান, ভারত বছরে ৮.৫ লক্ষ কোটি টাকার দুধ উৎপাদন করে। এই বিপুল পরিমাণ দুধ উৎপাদনের সুবিধা পেয়ে থাকেন দেশের অগণিত ছোটো ব্যবসায়ী বা ছোটো চাষি। যা বিশেষ ভাবে উল্লেখযোগ্য।

একই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী দাবি করেন, গম এবং চালের উৎপাদন থেকে যে টার্নওভার হয়, তার চেয়েও অনেক বেশি টার্নওভার হয় দুধ উৎপাদনে। তাই দেশে সার্বিক দুধ উৎপাদনের পরিমাণ যদি সঠিক ভাবে বজায় রাখতে হয়, তবে এই এই অংশের ব্যবসায়িক স্বার্থ অক্ষুণ্ণ রাখা প্রয়োজন।

আরও পড়ুন: সপ্তাহের প্রথম দিনে দুর্দান্ত গতিতে ৬০ হাজার পার সেনসেক্স, মঙ্গলবার নজর রাখুন এই স্টকগুলিতে

Be the first to comment

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.