কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর আর্থিক প্যাকেজে কতটা সুবিধা পাবে পর্যটনশিল্প

কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন
কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। ছবি: এএনআই-এর সৌজন্যে

বিবি ডেস্ক : করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের পর কার্যত তছনছ হয়ে গিয়েছে ভারতের অর্থনীতি। এর বিশেষ প্রভাব পড়েছে পর্যটন শিল্পে। সেই ভেঙে পড়া পর্যটন শিল্পকে চাঙ্গা করতে সোমবার আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন।

করোনা জর্জরিত অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার জন্য ১.১ লক্ষ কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজকে মূলত দুটি ভাগে ভাগ করা হয়েছে। এর ভাগ এক দেওয়া হবে স্বাস্থ্যক্ষেত্রকে। স্বাস্থ্যক্ষেত্রের জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে ৫০ হাজার কোটি টাকা।

বাকি দ্বিতীয় ভাগে ৬০ হাজার কোটি টাকা দেওয়া হবে অন্যান্য ক্ষেত্রগুলিকে। এর মধ্যে অন্যতম হল পর্যটন শিল্প

অর্থমন্ত্রী জানিয়েছেন, পর্যটন এজেন্সিগুলিকে ১০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ঋণ দেওয়া হবে। এ ছাড়া গাইডদের ১ লক্ষ টাকা ঋণ হিসাবে দেওয়া হবে।

অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন জানিয়েছেন, ‘‘ ৭.৯৫ শতাংশ প্রতি বছর সুদের হারে এই টাকা ঋণ হিসাবে নেওয়া যাবে। সেই ঋণের গ্যারেন্টার হবে সরকার। আগে এই ধরনের ঋণের ক্ষেত্রে সুদ গুনতে হতো ৯ থেকে ১০ শতাংশ।’’

এই ঋণ নেওয়ার জন্য কোনো প্রসেসিং ফি লাগবে না। প্রিপেমেন্ট চার্জে ছাড় দেওয়ার পাশাপাশি কোনো বাড়তি কোল্যাটারাল লাগবে না বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী।

অর্থমন্ত্রীর এই ঘোষণায় স্বাভাবিক ভাবেই খুশির ছোঁয়া লেগেছে পর্যটন শিল্পে। দ্বিতীয় ঝড় ক্রমশ স্থিমিত হয়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ফের ঘুরে দাঁড়ানোর আশা বুক বেঁধেছেন পর্যটন শিল্পের সঙ্গে যুক্ত সংস্থাগুলি।

ইতিমধ্যেই উত্তরবঙ্গে টিকা দেওয়া হয়েছে শুরু হয়েছে পর্যটনশিল্পের সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তি এবং সংস্থার কর্মীদের। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর এই ঘোষণা পর্যটন শিল্পকে চাঙ্গা করতে কতটা সাহায্য করে এখন সেটাই দেখার।

Be the first to comment

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.