ব্যাঙ্ক বদলাতে চাইছেন? তাড়াহুড়ো না এ করে এই ৪টি বিষয় মাথায় রাখুন

ব্যাঙ্ক

বিবি ডেস্ক : সরকার ব্যাঙ্ক সংযুক্তিকরণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সেই সিদ্ধান্ত মেনে ইতিমধ্যেই একাধিক ব্যাঙ্কের সংযুক্তিকরণ হয়ে গিয়েছে। তবে, ব্যাঙ্ক সংযুক্তিকরণের ফলে নানা রকমের সমস্যাতেও পড়তে হচ্ছে। বিশেত আইএফএসি কোড নিয়ে। বিরক্ত হয়ে অনেক পুরানো ব্যাঙ্ক ছেড়ে, অন্য কোনো ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্ট খোলার পরিকল্পনা করছেন। ব্যাঙ্ক পরিবর্তন করার সিদ্ধান্তটি একটু ভেবেচিন্তে নেওয়া উচিত। অন্যথায় ক্ষতির সম্ভাবনা থেকে যেতে পারে।

আরও ভালো পরিষেবা ও বেশি সুদ

আপনার পুরানো ব্যাঙ্কের পরিষেবা পছন্দ না হলে আপনি ব্যাঙ্ক পরিবর্তন করতে পারেন। সেক্ষেত্রে মাথায় রাখবেন ভালো গ্রাহক পরিষেবার জন্য আপনাকে বাড়তি ফি দিতে হতে পারে। উন্নত ব্যাঙ্কিং পরিষেবার জন্য বাড়তি ফি দিতে রাজি থাকলে তাহলেই আপনি ব্যাঙ্ক পরিবর্তন করুন।

সরকারি ব্যাঙ্কগুলিতে ন্যূনতম ব্যালেন্স রাখতে হয় দুই হাজার থেকে তিন হাজার টাকার মধ্যে। বেসরকারি ব্যাঙ্কে কিন্তু এর তিন থেকে চার গুণ ন্যূনতম ব্যালান্স রাখতে হবে। অনেক বেসরকারি ব্যাঙ্ক ভালো গ্রাহক পরিষেবা দিয়ে থাকে, তবে তারজন্য বেশি চার্জও নিয়ে থাকে। তাই আপনি যদি কোনো সরকারি ব্যাঙ্কে খাতা বন্ধ করে বেসরকারি ব্যাঙ্কে খাতা খুলতে চান, তবে প্রথমে পরিষেবাগুলি দেওয়ার জন্য কী চার্জ নেওয়া হয় তা জেনে নিন।

উচ্চ হারে সুদের আকাঙক্ষায় ব্যাঙ্ক পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত সঠিক নয়। তার কারণ, আপনার অ্যাকাউন্টে যদি প্রচুর পরিমাণ অর্থ থাকে তবেই আপনি উচ্চহারে সুদ পাবেন। অ্যাকউন্টে বিশাল পরিমাণ টাকা (এক লাখ বা তার বেশি টাকা) না থাকলে সুদের হারে খুব একটা পার্থক্য দেখা যায় না।

ব্যাঙ্ক
ব্যাঙ্ক পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নিন সাবধানে

ব্যাঙ্কটি কতটা শক্তিশালী

আপনি সরকারি ব্যাঙ্ক থেকে বেসরকারি ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্ট সরিয়ে নিয়ে যেতে চাইছেন, তার আগে দেখে নিন ব্যাঙ্কটি কতটা শক্তিশালী। যে ব্যাঙ্কের ব্যালান্সশিট ভালো, সে রকম ব্যাঙ্ককেই বেছে নিন। এই ব্যাঙ্কগুলির হঠাৎ করে ব্যবসা গুটিয়ে নেওয়ার সম্ভাবনা কম। একটা বিষয় মাথায় রাখবেন, সরকারি ব্যাঙ্কগুলি বেসরকারি ব্যাঙ্কগুলি চেয়ে বেশি সুরক্ষিত। তবে বড় বেসরকারি ব্যাঙ্কও যথেষ্ট শক্তিশালী।

শাখা খোলা বা বন্ধের সময়

ব্যাঙ্ক বাছার ক্ষেত্রে শাখা খোলা এবং বন্ধের সময়ও একটি গুরুত্বপূর্ণ প্যারামিটার। আপনার অবস্থান অনুযায়ী ব্যাঙ্কের লোকেশনটিও গুরুত্বপূর্ণ। আপনি যাতে প্রয়োজনের সময় দ্রুত ব্যাঙ্কে পৌঁছে যেতে পারেন।

প্রোডাক্ট পোর্টফোলিও

আপনার বর্তমান ব্যাঙ্কের প্রোডাক্ট পোর্টফোলিও যদি আপনার প্রয়োজনের সঙ্গে না মেলে তবে আপনি ব্যাঙ্ক পরিবর্তন করুন। আপনার ব্যাঙ্ক এমন পরিষেবা অফার করছে যা আপনার প্রয়োজন নেই অথচ আপনার থেকে বাড়তি চার্জ কাটা হচ্ছে। এ ধরনের পরিস্থিতিতে আপনি ব্যাঙ্ক বদলানোর কথা ভাবতে পারেন।

আরও পড়ুন :

অবসরগ্রহণের পর হোম লোনের আবেদন করবেন? এই ৬টি বিষয় মাথায় রাখুন

Home Insurance করার আগে জেনে রাখা ভালো

Be the first to comment

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.