যে ভারতীয় শিল্পপতিকে মদত দিলেন মার্ক জুকেরবার্গ, তিনিই প্রায় ছুঁয়ে ফেলেছেন তাঁকে

বাংলাbiz ডেস্ক: কে ভাবতে পেরেছিল যাঁর কোম্পানিতে তাঁর কোম্পানি বিনিয়োগ করছে সেই তিনিই বিশ্বে ধনীর ব্যক্তির তালিকায় তাঁকে প্রায় টপকে যাওয়ার তালিকায় চলে আসবেন। এ রকমই ঘটেছে মার্ক জুকেরবার্গ আর মুকেশ অম্বানির ক্ষেত্রে।

গত এপ্রিলে ফেসবুক সিদ্ধান্ত নেয়, তারা মুকেশ অম্বানির জিও প্ল্যাটফর্মে ৫.৭ বিলিয়ন তথা ৫৭০ কোটি ডলার (৪৩৫৭৪ কোটি টাকা) বিনিয়োগ করবে। ফেসবুকের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা এবং চিফ একজিকিউটিভ মার্ক জুকেরবার্গ তখন ভাবতেও পারেননি, তিনি যে কোম্পানিতে টাকা ঢালছেন, সেই কোম্পানির মলিক সম্পদের হিসাবে তাঁকে প্রায় ছুঁয়ে ফেলবেন।

রিল্যায়ান্স ইন্ডাস্ট্রিজের শেয়ার-সম্পদ গত কয়েক মাসে জোরদার হওয়ার ফলস্বরূপ বিশ্বের ধনী ব্যক্তিদের চার নম্বর স্থানে উঠে এসেছেন মুকেশ অম্বানি। মার্ক জুকেরবার্গের ঘাড়ের কাছে নিশ্বাস ফেলছেন। জুকেরবার্গ রয়েছেন তিন নম্বর স্থানে।

গত শুক্রবার মুকেশের সম্পদের পরিমাণ ছিল ৮০.৬০ বিলিয়ন (৮০৬০ কোটি) ডলার। এ বছর সম্পদের পরিমাণ বেড়েছে ২২ বিলিয়ন (২২০০ কোটি) ডলার। বিলাসপণ্য প্রস্তুতকারক লুই ভুইটনের মালিক ফরাসি বিলিওনেয়ার বার্নার্ড আর্নল্টকে পাঁচ নম্বর স্থানে পাঠিয়ে দিয়েছেন মুকেশ অম্বানি।

জিও প্ল্যাটফর্মে আরও একটি বড়ো বিনিয়োগকারী হল ‘অ্যালফাবেট’। ৭.৭৩% শেয়ারের মালিকানা পেতে ‘অ্যালফাবেট’ বিনিয়োগ করেছে সাড়ে ৪ বিলিয়ন তথা ৪৫০ কোটি ডলার (৩৩,৭৩৭ কোটি টাকা)। ‘অ্যালফাবেট’-এর অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেজ ৭১.৮ বিলিয়ন (৭১৮০ কোটি) ডলারের সম্পদ নিয়ে ধনীর তালিকায় রয়েছেন অষ্টম স্থানে এবং আরেক প্রতিষ্ঠাতা সের্গে ব্রিন ৬৯.১ বিলিয়ন (৬৯১০ কোটি) ডলার মুল্যের সম্পদের অধিকারী হয়ে রয়েছেন নবম স্থানে।                

Be the first to comment

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.