সেনকো গোল্ড অ্যান্ড ডায়মন্ডসের ডিজি গোল্ড, এক অভিনব প্রচারে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়

বিবি ডেস্ক: সেনকো গোল্ড অ্যান্ড ডায়মন্ডস, পূর্ব ভারতের বৃহত্তম সংগঠিত গয়নার খুচরো বিক্রেতা (স্টোরের সংখ্যার উপর ভিত্তি করে), শুক্রবার ডিজি গোল্ড (https://mydigigold.com) নামে নিজের অনলাইন সোনা লেনদেনের প্ল্যাটফর্মের জন্য সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের সঙ্গে একটি নতুন প্রচারাভিযান শুরু করল।

এ দিন থেকে শুরু এই প্রচার পর্বে বর্তমান বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভকে সংস্থার ডিজিটাল সোনার ব্যবসা ‘ডিজি গোল্ড'(DG Gold) -এর প্রচার করতে দেখা যাবে। প্রসঙ্গত, সৌরভ ২০১৫ সাল থেকে সেনকো গোল্ড অ্যান্ড ডায়মন্ডস-এর ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর।

এই মজাদার প্রচারে, সৌরভ অভিনীত ৩টি হাস্য-রসাত্মক চলচ্চিত্রের একটি সিরিজের মাধ্যমে ডিজি গোল্ডে সোনা কেনা কতটা সহজ তা তুলে ধরা হচ্ছে। এই ফিল্মগুলিতে, সৌরভ সুপরিচিত লোককাহিনির ৩টি চরিত্রে অভিনয় করছেন, যারা তাদের সোনার আকাঙ্ক্ষা পূরণ করতে চরম পর্যায়ে গিয়েছে। কিন্তু মজার বিষয় হল, এই গল্পগুলি প্রতিবারই হাস্যকর ভাবে বিপর্যয়কর ফলাফলের সঙ্গে শেষ হচ্ছে।
প্রতিটি চলচ্চিত্র প্রাক্তন ভারত-অধিনায়কের একটি বার্তা দিয়ে শেষ হচ্ছে, ‘সোনা পাওয়ার জন্য এত ঘুর-পথে কেন যাবেন, যখন আপনি সেনকো ডিজি গোল্ডে সহজেই সোনা কিনতে পারবেন!’

এই চলচ্চিত্রগুলিতে সৌরভকে এমন কমেডি অবতারে দেখা যাবে, যে ভাবে তাঁকে আগে কখনও দেখা যায়নি। তাঁর নিখুঁত কমিক টাইমিং এবং নিখুঁত অভিনয় এই চলচ্চিত্রগুলিকে আরও স্মরণীয় করে তুলেছে। এই বিজ্ঞাপনগুলো টিভি ও ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে চলবে।

ফিল্ম ১ – আলিবাবার চরিত্রে সৌরভ

সৌরভ বিখ্যাত লোককথার নায়ক আলিবাবার চরিত্রে অভিনয় করেছেন। এই ছবিতে কিংবদন্তি মন্ত্র ‘খুলজা সিম সিম’ বলে গুহা থেকে ৪০ জন চোরের কাছ থেকে সোনা চুরি করার চেষ্টা করছেন তিনি। তবে এখানেও, গল্পের মতোই, তিনিও গুহাটি খোলার ‘পাসওয়ার্ড’ বা ওই মন্ত্রটি ভুলে যাবেন, যা হাস্যকরভাবে গল্পের বিপর্যয়কর সমাপ্তির দিকে নিয়ে যাবে। ফিল্মটির শেষে সৌরভ সেনকো ডিজি গোল্ডকে সোনার আকাঙ্ক্ষা মেটানোর নির্ঝঞ্ঝাট উপায় হিসেবে তুলে ধরছেন।

দেখা যাবে এখানে : https://youtu.be/Zyn2rgGqqW0

ফিল্ম ২ – সৌরভ এবং সোনার রাজহাঁস

এই ফিল্মটিতে ‘সোনার ডিম দেওয়া হাঁস’-এর লোককথাকে আধুনিক প্রেক্ষাপটে তুলে ধরা হয়েছে। সৌরভ এই গল্পেরও নায়ক যিনি তার সোনার লালসা মেটানোর জন্য জাদুর সোনার রাজহাঁস হাতে পান। কিন্তু এই গল্পটিতেও একটি অপ্রত্যাশিত এবং হাস্যকর মোড় রয়েছে, যা সত্যিই তাঁর কৌতুকাভিনয়ের শৈলিকে ফুটিয়ে তুলেছে। এই ছবিটির শেষেও সৌরভ নিজের মতো করে সেনকো ডিজি গোল্ডকে সোনা পাওয়ার সহজ এবং নির্ভরযোগ্য উপায় হিসাবে তুলে ধরেছেন।

দেখা যাবে এখানে: https://youtu.be/MsRW4aYYgIk

ফিল্ম ৩ – দ্য টাচস্টোন/পরশপাথরের সাথে সৌরভ

সৌরভ এই গল্পে একজন মধ্যবিত্তের চরিত্রে অভিনয় করেছেন যিনি ঘটনাচক্রে একটি অলৌকিক টাচস্টোন বা পরশপাথর হাতে পান – এমন একটি পাথর যার ছোঁয়ায় লোহা সোনায় পরিণত হয়। কিন্তু এই এখানেও উত্তেজনায় অসতর্ক হয়ে যায় গল্পের নায়ক, যার ফলে শেষের দিকে অপ্রত্যাশিত, মজার সমাপ্তি ঘটে। গল্পের শেষে সৌরভ নিজে সেনকো ডিজি গোল্ডকে সোনা কেনার সহজ ও স্মার্ট উপায় হিসেবে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছেন।

দেখা যাবে এখানে: https://youtu.be/MsRW4aYYgIk

এই অনুষ্ঠানে নিজের মতামত ব্যক্ত করে সৌরভ বলেন, “আমি নতুন প্রচার নিয়ে খুবই উচ্ছ্বসিত যেটি অনলাইনে সোনার লেনদেন সম্পর্কে মজার এবং তথ্যপূর্ণ ধারণা দেবে। আমি এই ব্র্যান্ডের সঙ্গে নতুন নই। কারণ, সেনকো গোল্ড অ্যান্ড ডায়মন্ডস-এর সাথে আমার অ্যাসোসিয়েশন ২০১৫ থেকে শুরু হয়েছে। সেনকো গোল্ড একটি বিশ্বস্ত জুয়েলারি ব্র্যান্ড। এমন একটি বিখ্যাত জুয়েলারি ব্র্যান্ডের সাথে যুক্ত হতে পেরে আমি আনন্দিত।”

সেনকো গোল্ড অ্যান্ড ডায়মন্ডস-এর এমডি এবং সিইও শুভঙ্কর সেন বলেন, “আমরা আজ থেকে প্রায় এক বছর আগে আমাদের ওয়েবসাইট mydigigold.com-এর মাধ্যমে গ্রাহকদের সোনা কেনা, রিডিম এবং বিক্রি করার জন্য একটি ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ডিজি গোল্ড চালু করেছিলাম। এই আধুনিক পণ্যটি অত্যন্ত সচেতন সেই সব ভারতীয়দের কথা মাথায় রেখে লঞ্চ করা হয়েছিল যারা বিনিয়োগ করার জন্য বিভিন্ন সম্পদের শ্রেণী সম্পর্কেই জানার পাশাপাশি তাড়াতাড়ি সঞ্চয়ের সুবিধাগুলিও উপলব্ধি করতে পারেন৷ এই প্রচারাভিযানে, আমাদের জাতীয় ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর সৌরভ গাঙ্গুলিকে তিনটি ভিন্ন অবতারে দেখা যাবে, যা ডিজি গোল্ডের মূল বৈশিষ্ট্যগুলিতুলে ধরেছে। যেগুলি হল, তাৎক্ষণিক ঝামেলা-মুক্ত লেনদেন, বিশুদ্ধ ২৪ ক্যারেট সোনা, সম্পূর্ণ নিরাপত্তা এবং বীমার সুবিধা। আমরা নিশ্চিত যে আমাদের গ্রাহকরা এই প্রচারাভিযানটি পছন্দ করবেন এবং এটি আমাদের প্রিয় দাদার কৌতুকাভিনয়ের দিকটি দেখে তাদের মুখে হাসি ফুটবে। আমি জয়িতা সেন-ডিরেক্টর, সেনকো গোল্ড অ্যান্ড ডায়মন্ডস এবং পুরো মার্কেটিং টিমকে ধন্যবাদ জানাতে চাই যারা আমাদের বিজ্ঞাপন সংস্থা Bang On-এর সাথে একটি অত্যন্ত আকর্ষক বিজ্ঞাপনের সেট তৈরি করতে সহযোগিতা করেছেন। আমি দিব্যেন্দু বরাল, চিফ ডিজিটাল অ্যান্ড ইনোভেশন অফিসার এবং আমাদের টেক টিমকেও ধন্যবাদ জানাতে চাই এই নতুন যুগের প্রোডাক্ট তৈরি করার জন্য।”

ব্যাং অন (Bang On)-এর কন্টেন্টের পরিচালক ও চিত্রগ্রাহক, পিয়াশ ঘোষ বলেন – “এই ছবিতে কাজ করাটাই একটি দুর্দান্ত অভিজ্ঞতা ছিল। ছবির ধারণাগুলি নিয়ে আসা থেকে শুরু করে ক্যামেরায় সেগুলিকে জীবন্ত করে তোলা, সবটাই খুব চমকপ্রদ। এর সবথেকে ভাল অংশ ছিল সৌরভ নিজেই। তিনি হাস্যরসাত্মক ভূমিকা পালন করে নিজের কৌতুকাভিনয়ের দিকটি প্রথমবারের মতো পর্দায় প্রকাশ করেছেন যা এক কথায় দুর্দান্ত ছিল। পুরো প্রক্রিয়াটিতে তার সমর্থন এবং মূল্য সংযোজন এই অভিজ্ঞতাকে আরও উপভোগ্য করে তুলেছে। তিনি একজন পরিচালকের স্বপ্নের অভিনেতা এবং এই কাজের মধ্যে দিয়ে তিনি সবাইকে অবাক করে দিয়েছিলেন। তার স্বাভাবিক কমিক টাইমিং এবং সেন্স অফ হিউমারকে কাজে লাগিয়ে আমরা অদূর ভবিষ্যতে তার সাথে এরকম আরও অনন্য ছবি তৈরির অপেক্ষায় আছি!”

আরও পড়তে পারেন: সপ্তম বর্ষপূর্তিতে ‘নিও প্লাস ডিজিটাল সেভিংস’ অ্যাকাউন্ট চালু করল বন্ধন ব্যাঙ্ক

Be the first to comment

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.