মোদী- শি বৈঠক : যে আর্থিক বিষয় উঠে আসতে পারে আলোচনায়

xi-modi

বিবি ডেস্ক : শনিবার মন্দির শহর মামাল্লপুরমে এক ঘরোয়া বৈঠকে বসতে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং চিনা প্রেসিডেন্ট শি ঝিনপিং। এই বৈঠকে দু’দেশের মধ্যে একাধিক মত পার্থক্য দূর হতে পারে বলে মনে করছেন কূটনৈতিক বিশেষজ্ঞ মহল।

প্রাক্তন বিদেশ সচিব ললিতমান সিং লাইভমিন্টকে জানিয়েছেন, দু’দেশের মধ্যে তিন ধরনের ইস্যু নিয়ে মত পার্থক্য রয়েছে—আন্তর্জাতিক এবং স্থানীয়, অর্থনীতি এবং দ্বিপাক্ষিক। এই তিন ধরনের ইস্যুই মূলত আলোচনায় উঠে আসতে পারে বলে তাঁর মত।

আর্থিক ইস্যুর মধ্যে যে বিষয়টি প্রধান আলোচ্য হিসাবে উঠে আসতে পারে তা হল, দু’দেশের মধ্যে পারস্পরিক বাণিজ্য। যাতে চিন অনেকটা এগিয়ে রয়েছে। এই তফাত প্রায় ৫কোটি ডলারের কাছাকাছি।

ভারতের বাজার কার্যত ছেয়ে গিয়েছে চিনা সামগ্রীতে। মোবাইল থেকে বাজি সবই আমদানি হচ্ছে চিন থেকে। অন্যদিকে ভারতে সে ভাবে জায়গা করে নিতে পারেনি চিনের বাজারে।

শনিবারের বৈঠকে চিনের বাজার ভারতের জন্য বিস্তৃত করা দাবি তুলতে পারেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।
অন্যদিকে চিন, ভারতে ৫জি নেক্সট জেনারেশন ওয়ারলেশ প্রযুক্তি চালু ব্যাপারে চাপ দিতে পারে বলে কূটনৈতিক বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন।

গত বছর এপ্রিলে চিনের উহানে দু’জনে বৈঠকে বসেছিলেন। সেখানেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী চিনের প্রেসিডেন্ট শি ঝিনপিংকে ভারতে আসার আমন্ত্রণ জানিয়ে ছিলেন। সেই আমন্ত্রণ রক্ষা করেই দেশে আসছেন চিনা প্রেসিডেন্ট।

Be the first to comment

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.