লক্ষ্য চিনা পণ্যের আমদানী নিয়ন্ত্রণ? পণ্যভিত্তিক বিশদ তথ্য চাইল প্রধানমন্ত্রীর দফতর

নয়াদিল্লি : ভারত-চিন উত্তেজনা পরিস্থিতিতে আমদানীকৃত পণ্য নিয়ে নড়েচড়ে বসল কেন্দ্র। সমস্ত আমদানীকৃত পণ্যের বিশদ তথ্য চাইল প্রধানমন্ত্রীর দফতর। সূত্রে জানা গিয়েছে চিনা পণ্যের আমদানীকে নিয়ন্ত্রণ করে দেশীয় পণ্যের উৎপাদনে জোর দেওয়ার লক্ষ্যেই এই সিদ্ধান্ত।

আত্মনির্ভর ভারত তৈরির লক্ষ্যে কী ভাবে পা ফেলা যায় তা স্থির করতে সম্প্রতি একটি উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক হয় প্রধানমন্ত্রীর দফতরে। সেই বৈঠকে আলোচনা হয় কী ভাবে চিন নির্ভরতা কমানো যেতে পারে।

সীমান্তে দু-দেশের মধ্যে উত্তেজনা পরিস্থিতি তৈরি হওয়ার পর থেকেই দেশ জুড়ে চিনা পণ্য বয়কটের দাবি জোরালো হচ্ছে। এই অবস্থায় চিন পণ্য নিয়ে সরকারের অবস্থান স্পষ্ট করাটা জরুরি হয়ে উঠেছে।

ভারতের আমদানীকৃত পণ্যের প্রায় ১৪ শতাংশ চিনের দখলে। মোবাইল, টেলিকম, বিদ্যুৎ, প্লাস্টিকের খেলনা এবং জরুরি ওষুধের কাঁচামাল সরবরাহ করে চিন।

সূত্রে জানা গিয়েছে, হাতঘড়ি, দেওয়াল ঘড়ি, মাথার ক্রিম, শ্যাম্পু, ফেস পাওডার ইত্যাদির কাঁচামাল সরবরাহ করে থাকে চিন। এ বিষয়ে শিল্প সংস্থাগুলির কী মত তা জানাতে চাওয়া হয়েছে।

শিল্প সংস্থাগুলিও জানিয়েছে, এ নিয়ে তাদের মতামত খুব শীঘ্রই তারা শিল্প ও বাণিজ্যমন্ত্রকের কাছে পাঠিয়ে দেবে।

সূত্র মানি কন্ট্রোল

Be the first to comment

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.