নির্বাচনে প্রার্থী না হলেও ফের অমিত মিত্রর হাতেই রাজ্যের অর্থ দফতর

এর আগে প্রথম ও দ্বিতীয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারেও এই দায়িত্ব সামলেছেন অমিত মিত্র।

বিবি ডেস্ক: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃতীয় বারের মন্ত্রীসভায় অর্থ দফতরের দায়িত্ব পেলেন অমিত মিত্র। এর আগে প্রথম ও দ্বিতীয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারেও তিনি এই দায়িত্ব সামলেছেন।

২০১১-তে প্রথমবার ক্ষমতায় আসার পর মমতা অর্থমন্ত্রকের দায়িত্ব তুলে দিয়েছিলেন অমিতের হাতে। ২০১৬-র নির্বাচনে খড়দহ থেকে জয়ী হয়ে অর্থমন্ত্রী হয়েছিলেন অমিত। এ বারের বিধানসভা নির্বাচনে প্রার্থী হননি অমিত। অসুস্থতার কারণে এবার ভোটে প্রার্থী হননি অমিত। খড়দহে কাজল সিনহাকে প্রার্থী করে তৃণমূল। তবে ওই আসনে ভোট হয়ে যাওয়ার পরে মৃত্যু হয় কোভিড আক্রান্ত কাজলের।

এ দিন সশরীরে শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে হাজির থাকতে পারেননি তিনি। ভার্চুয়ালে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় শপথ বাক্য পাঠ করান তাঁকে।

প্রসঙ্গত, বণিক সংগঠন ফেডারেশন অব ইন্ডিয়ান চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ফিকি)-র প্রাক্তন সেক্রেটারি জেনারেল অমিত। ২০১১ সালের বিধানসভা ভোটে রাজ্যের প্রাক্তন বাম সরকারের অর্থমন্ত্রী অসীম দাশগুপ্তকে পরাজিত করে খড়দহ আসনে নির্বাচিত হয়েছিলেন।

অর্থনীতির প্রাক্তন অধ্যাপক জগতের মানুষ অমিত। তাঁর বাবা হরিদাস মিত্র ছিলেন প্রাক্তন স্বাধীনতা সংগ্রামী ও পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার প্রাক্তন ডেপুটি স্পিকার। তাঁর মা বেলা মিত্র। প্রেসিডেন্সি কলেজ থেকে অর্থনীতিতে স্নাতক অমিত মিত্র দিল্লি স্কুল অফ ইকনোমিক্স থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। আমেরিকার ডিউক ইউনিভার্সিটিতে পিএইচডি করেন।

পড়তে পারেন: অমিতাভ বচ্চন থেকে অক্ষয়কুমারের মতো তারকাদের প্রথম পারিশ্রমিক জানলে অবাক হয়ে যাবেন

Be the first to comment

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.