কোভিড ১৯ পরিস্থিতিতে অনলাইন বিক্রি বেড়েছে, ১০০ কোটি বিনিয়োগ করে অনলাইনে জোর অ্যাময় ইন্ডিয়ার

বিবি ডেস্ক : কোভিড ১৯ পরিস্থিতিতে ক্রেতাদের প্রবণতা দেখে অনলাইন বিক্রিতে জোর দিতে চাইছে ভোগ্যপণ্য বিক্রয়কারী সংস্থা অ্যাময় ইন্ডিয়া। সংস্থাটি মূলত মাল্টি লেভেল মার্কেটিং(এমএলএম)-এর জন্য পরিচিত।

উৎপাদন ক্ষেত্র স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থা এবং অনলাইন বিক্রিতে জোর দেওয়ার জন্য আগামী দু’বছরের জন্য সংস্থাটি ১০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে।

কোভিড ১৯ পরিস্থিতিতে অনলাইন কেনাকাটা বেড়েছে। অনলাইন থেকে ভোগ্যপণ্য কেনার চাহিদা বেড়েছে উল্লেখযোগ্য হারে। ক্রেতাদের এই প্রবণতা দেখে অ্যাময় ইন্ডিয়া পণ্য সরবারহ ব্যবস্থাকে ঢেলে সাজাতে চাইছে।

অ্যাময় ইন্ডিয়ার সিইও অংশু বুধরাজা জানিয়েছেন, ‘‘ উৎপাদন ক্ষেত্রে স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থা এবং ডিজিটাল মাধ্যমে বিক্রয় ব্যবস্থাকে আরও উন্নত করতে আগামী দু’বছরের জন্য ১০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করছি। আগামীদিনগুলিতে সংস্থার বাজার বৃদ্ধিতে এই বিনিয়োগ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেবে।’’

ভারতে ১০০০ কোটি টাকা বিনিয়োগের ব্যাপারে অ্যাময় ইন্ডিয়া বদ্ধপরিকর। যার মধ্যে ৬০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করা হবে তামিলনাড়ুর নীলাকোটাইতে কারখানা তৈরির জন্য।

বুধরাজা জানিয়েছেন, বিশ্ব জুড়ে স্বাস্থ্যক্ষেত্রে যে সঙ্কট দেখা দিয়েছে তার কারণে ক্রেতাদের দৃষ্টিভঙ্গি এবং পছন্দ একেবারে পালটে গিয়েছে। ফলে অনলাইনে বিক্রি বেড়েছে।

কতটা বেড়েছে অনলাইনে বিক্রি?

বুধরাজ জানিয়েছেন, ‘‘ উল্লেখযোগ্য হারে অনলাইনে বিক্রি বড়েছে। জানুয়ারি মাসে অনলাইনে বিক্রির পরিমাণ ছিল ৩৩.৬ শতাংশ তা জুন ২০২০-তে বেড়ে হয়েছে ৭০ শতাংশ। অনলাইনে আগামীদিনে এই বিক্রি বজায় থাকবে বলেই মনে করছি আমরা। সে কারণে আমরা সাপ্লাই চেন এবং হোম ডেলিভারি ব্যবস্থাকে আরও উন্নত করতে চলেছি। ’’

অনলাইনে কী ধরনের প্রোডাক্ট কিনছেন ক্রেতারা?

বুধরাজ জানিয়েছে, ‘‘ বর্তমান পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর উপর মনোনিবেশ করেছেন। ফলত পুষ্টি সংক্রান্ত প্রোডাক্টেরই চাহিদা বেড়েছে।’’ এক্ষেত্র ক্রেতাদের প্রথম পছ্ন্দ বিভিন্ন আয়ুর্বেদিক প্রোডাক্ট।

অ্যাময় ইন্ডিয়া মনে আগামী তিন বছরে এই বিভাগটির বৃদ্ধি হবে ৬৫ শতাংশ। ফলে এই বিভাগটি আরও শক্তিশালী করাই এখন লক্ষ্য অ্যাময় ইন্ডিয়ার।

সিইও জানিয়ে, ‘‘ শুধু ভারত নয় বিশ্বে পুষ্টি এবং স্বাস্থ্য সংক্রান্ত ক্যাটাগরিতে সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয়। এই ক্যাটাগরি অ্যাময় ইন্ডিয়াকে ১০০০কোটিরও বেশ ব্যবসা দিয়েছে।’’

তিনি আরও বলেন, ‘‘ আমরা আশাকরি সারাবছরই এই ভাবে ব্যবসা বাড়তে থাকবে।’’

সে কারণে অফলাইন ব্যবসার সঙ্গে অনলাইন ব্যবসাতেও জোর দিচ্ছে অ্যাময় ইন্ডিয়া।

সূত্র: বিজনেস টুডে

Be the first to comment

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.