সোনার ইটিএফে বিনিয়োগ চারগুণ বেড়েছে, আপনারও কি বিনিয়োগ করা উচিত?

সোনার ইটিএফ কী? কী ভাবে কেনাবেচা করা যায়? জানুন বিস্তারিত…

বিবি ডেস্ক: করোনা মহামারিতে অর্থনৈতিক অনিশ্চয়তার মধ্যেই সোনায় বিনিয়োগ বেড়েছে। বিশেষত সোনার ইটিএফ (Gold ETF)-এ বিনিয়োগ ক্রমাগত বাড়ছে। তথ্য অনুযায়ী, সোনার ইটিএফে বিনিয়োগ ২০২০-২১ অর্থবছরে চারগুণ বেড়েছে আগের বছরের তুলনায়।

এই সময়কালের মধ্যে সোনার ইটিএফে বিনিয়োগ বেড়েছে ৬,৯০০ কোটি টাকা। এই নিয়ে পর পর দু’বছর সোনার ইটিএফগুলিতে বিনিয়োগ বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে ২০১৩-১৪ সাল থেকে সোনার ইটিএফ থেকে ক্রমাগত বিনিয়োগ তুলে নেওয়ার প্রবণতা দেখা যাচ্ছে।

বিনিয়োগের প্রবণতা আরও বাড়তে পারে

বিশ্লেষকরা বলছেন, ইটিএফ-এ বিনিয়োগের এই প্রবণতাটি অব্যাহত থাকতে পারে। তবে করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ বাজারকে প্রভাবিত করেছে। অ্যায়োসিয়েশন অফ মিউচুয়াল ফান্ডস অব ইন্ডিয়া (এএমএফআই)-র তথ্য অনুযায়ী, ২০২০-২১ অর্থবছরের শেষের দিকে, সোনার সঙ্গে সম্পর্কিত ১৪টি ইটিএফ-এ কোটি টাকা বিনিয়োগ হয়েছে।

২০১৯-২০ সালে এই বিনিয়োগের পরিমাণ ছিল ১৬১৪ কোটি টাকা। অর্থাৎ, আগের অর্থবছরের থেকে এ বার বিনিয়োগের পরিমাণ চারগুণ বেড়েছে। ইটিএফ বিশেষজ্ঞদের মতে, করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শেয়ার বাজারের অস্থিরতা বাড়িয়ে তুলতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে সোনার মতো নিরাপদ সম্পদে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ বাড়তে পারে। বিনিয়োগকারীদের মতে ইটিএফ আরও বেশি লাভজনক হতে পারে।

সোনার ইটিএফ কী?

সোনার ইটিএফ মানে গোল্ড এক্সচেঞ্জ ট্রেডেড ফান্ড। এটি সমস্ত বড়ো স্টক এক্সচেঞ্জে লেনদেন হয়। আপনি যে ভাবে শেয়ার কেনাবেচা করেন, কতকটা একই ভাবে স্টক এক্সচেঞ্জ থেকে সোনার ইটিএফ কিনতে পারেন।

এখানে আপনি অনলাইনেই সোনা কেনার পর তা বিক্রি করে দিতে পারেন। এইকেনাবেচাও ডিম্যাট অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে করা হয়। গোল্ড ইটিএফ ফান্ড বৃহৎ আকারের সোনা কেনে। ইটিএফের মাধ্যমে যার শেয়ার দেওয়া হয় বিনিয়োগকারীদের।

আরও পড়তে পারেন: অমিতাভ বচ্চন থেকে অক্ষয়কুমারের মতো তারকাদের প্রথম পারিশ্রমিক জানলে অবাক হয়ে যাবেন

Be the first to comment

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.